Beta

অভিনয় আমার বয়ফ্রেন্ড : নীলা

০১ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৯:১২ | আপডেট: ০১ ডিসেম্বর ২০১৫, ২১:৪৪

লাক্স চ্যানেল আই সুপার স্টার ২০১৪ সালে চতুর্থ রানার আপ হয়েছিলেন নীলাঞ্জনা নীলা। এরই মধ্যে সেভেন আপের বিলবোর্ডেও দেখা যাচ্ছে তাঁর মুখশ্রী। টিভি নাটকে কাজ শুরু করেছেন, কিন্তু নিজেকে বড়পর্দাতেই ব্যস্ত রাখতে চান নীলা। সেই স্বপ্ন অবশ্য পূরণ হতে চলেছে, কারণ এরই মধ্যে ‘মায়া’ শিরোনামের এক চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন তিনি। ছবিটি পরিচালনা করছেন তানিম রহমান অংশু। ‘মায়া’  ছবিতে তাঁর বিপরীতে অভিনয় করবেন এ বি এম সুমন।

এনটিভি অনলাইনকে নীলা বলেন, ‘আসলে আমার মিডিয়ায় কাজ করার কোনো ইচ্ছা ছিল না। ফেসবুকে নিজের ছবি আপ করতাম। একদিন একটা মেসেজ এলো সুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন্য। ভাবলাম করা যায়। আবেদন করলাম। কিছুদিন পর দেখি আমি টিকে গিয়েছি। সেই থেকেই যাত্রা শুরু। ২০১৪ সালে চতুর্থ রানার আপ হওয়ার পর থেকে বুঝতে পারছি আমি অভিনয় ছাড়া বাঁচব না। আমার অভিনয় করতে খুব ভালো লাগে। নাটকে কাজ করছি, কিন্তু চলচ্চিত্রে কাজ করতে চাই। কারণ সেখানে অভিনয় করার সুযোগ আছে অনেক বেশি।’

আগামী ফেব্রুয়ারি মাস থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ‘মায়া’ চলচ্চিত্রের কাজ। ছবিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন নীলা। এ বিষয়ে নীলা বলেন, “আমার আসলে সাধারণ কোনো চরিত্রে অভিনয় করতে ভালো লাগে না। আমি পাগলের চরিত্রে অভিনয় করতে চাই। এমন চরিত্রে কাজ করতে চাই যে সাধারণ মানুষ নয়। আমাদের সমাজে এমন অনেক চরিত্র আছে যেসব চরিত্র নিয়ে ছোটবেলায় অনেক ছবি দেখেছি। ‘মায়া’ ছবিতে এরই মধ্যে আমি চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। ছবির গল্পটাও দারুণ। সকাল বেলায় স্কুলে গেলাম, ক্লাসের একটা ছেলের সঙ্গে প্রেম হয়ে গেল, এ ধরনের চরিত্রে কাজ করতে ভালো লাগে না। আসলে অভিনয়ের প্রেমে পড়ে গিয়েছি, অভিনয় আমার বয়ফ্রেন্ড।”

‘মায়া’ চলচ্চিত্র নিয়ে নীলা বলেন, ‘ছবির গল্পে দেখা যাবে আমার চাচা-চাচি আমাকে একটি পতিতালয়ে বিক্রি করে দেন। সেখানেই নায়কের সঙ্গে আমার দেখা হয়। সে পতিতাপল্লীর সর্দার। আমাকে অনেক নির্যাতন করে, কিন্তু আমার কোনো পরিবর্তন নেই দেখে একসময় সে ভাবতে থাকে, তার মাকেও এভাবে একদিন কেউ বেঁচে দিয়েছিল এই পতিতাপল্লীতে-এভাবেই এগিয়ে যায় গল্প। আসলে গল্পটার জন্যই আমি অভিনয় করতে রাজি হয়েছি। কারণ যেহেতু আমি নিজেকে অভিনয়শিল্পী হিসেবে দেখতে চাই, এ জন্য ছবিতে আমার চরিত্রটা কী সেটা আমার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।’

নীলা বর্তমান সময়ের চলচ্চিত্র নিয়ে বলেন, ‘যে কয়েকটি কারণে আমাদের চলচ্চিত্রের অবস্থা ভালো না, তার মধ্যে অন্যতম কারণ হলো নকল ছবির আগ্রাসন। যে ছবি টিভিতে দর্শক দেখে ফেলে, সেটা সিনেমা হলে এসে কেউ দেখতে চায় না। একসময় আমাদের চলচ্চিত্র লিড করত কারণ আমাদের ছবির গল্প ছিল মৌলিক। আমাদের ছবি দেখে সারা বিশ্বের মানুষ বুঝত এটা বাংলার ছবি। বাঙালিদের কালচার এটা। তাদের জীবন এমন। কিন্তু এখন যে গল্প নিয়ে ছবি হচ্ছে, সেটা কাদের জীবনের গল্প? কাদের কালচার উঠে আসছে? আমি জানি না। আমি এখনো বিশ্বাস করি, আমাদের দেশের গল্প নিয়ে ছবি বানালে সেটা আমাদের দর্শক যেমন দেখবে, তেমনি বিশ্বের মানুষও আমাদের চলচ্চিত্রকে আবারও আলাদাভাবে মূল্যায়ন করবে।’  

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement