Beta

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ

১১ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:৩০

বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা
সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবি জানিয়ে ঢাবিতে বিক্ষোভ। ছবি : এনটিভি

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের বিক্ষোভ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীরা। দাবি পূরণ না হলে কঠোর কর্মসূচিরও ঘোষণা দেয় তারা।

আজ বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) সামনে রাজু ভাস্কর্যের কাছে নববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। এতে প্রায় দুই হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানায়, ‘গত বছর রাজধানীর সাত কলেজকে ঢাবির অধিভুক্ত করার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিচয় নিয়ে বিড়ম্বনা সৃষ্টি, প্রশাসনিক কার্যক্রমে ব্যাহত, ক্যাম্পাসে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি, বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুণ্ণ ও শিক্ষার মানের অবনতি হচ্ছে।’

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ক মশিউর রহমান সাদিক বলেন, ‘অধিভুক্ত সাত কলেজ শিক্ষার্থীদের শুধু শিক্ষা সংক্রান্ত সুবিধা পাওয়ার কথা। কিন্তু তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিচয় দিয়ে নানামুখি সুবিধা নিচ্ছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর বাড়তি চাপ সৃষ্টি হচ্ছে।’

মশিউর বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে কাজ করতে গেলে কোন কলেজ তা জানতে চাওয়া হচ্ছে। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঢাবির পরিচয় ব্যবহার করছে। এমনকি তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগোও ব্যবহার করছে। তাই আমরা মনে করি এ অধিভুক্ত বাতিল করা উচিত।’

দেড় ঘণ্টা দীর্ঘ মানবন্ধনের সময় রাজু ভাস্কর্যের আশপাশের রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে শিক্ষার্থীরা।

মিছিলটি ক্যাম্পাসে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনে উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। সেখানে বেলা ২টা পর্যন্ত অবস্থান নেয় আন্দোলনকারীরা। এ সময় শিক্ষার্থীরা সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানীর নেতৃত্বে শিক্ষকদের একটা প্রতিনিধিদল এসে শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানান।

এ ব্যাপারে অধিভুক্ত সাত কলেজের সমন্বয়ক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, ‘দাবির বিষয়ে আমার কিছু বলার নেই। উপাচার্য আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা পালন করছি।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement