Beta

বন্দরনগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনের প্রতিশ্রুতি ইশতেহারে

১২ এপ্রিল ২০১৫, ২৩:০৬ | আপডেট: ১২ এপ্রিল ২০১৫, ২৩:১২

জাতীয় পার্টি সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী সোলায়মান আলম শেঠ এবং সুন্নি নাগরিক ঐক্য পরিষদের মেয়র পদপ্রার্থী আবদুল মতিন। ফাইল ছবি

বন্দরনগরী চট্টগ্রাম থেকে জলাবদ্ধতা নিরসনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছেন জাতীয় পার্টি সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী সোলায়মান আলম শেঠ এবং সুন্নি নাগরিক ঐক্য পরিষদের মেয়র পদপ্রার্থী আবদুল মতিন। আজ রোববার সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে দুই প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন করে তাঁদের ইশতেহার ঘোষণা করেন। 

সোলায়মান আলম শেঠ নগরীর জলাবদ্ধতাকে প্রধান সমস্যা হিসেবে তুলে ধরে তা সমাধানে একটি সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা তুলে ধরেছেন তাঁর ইশতেহারে। পাশাপাশি তিনি নির্বাচিত হলে পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুসারে সিটি করপোরেশন চালানোর ঘোষণা দিয়েছেন। অপরদিকে আবদুল মতিন নগরীর উন্নয়নের জন্য একটি মাস্টার প্ল্যান বাস্তবায়ন করে জলাবদ্ধতার নিরসনসহ ১১ দফার ভিত্তিতে তাঁর নির্বাচনী ইশতেহার দিয়েছেন।

জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী সোলায়মান আলম শেঠ তাঁর নির্বাচনী ইশতেহারে জাতীয় পার্টির শাসনামলে চট্টগ্রামের বিশদ উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে সিটি করপোরেশনের চলমান কার্যক্রম এগিয়ে নেওয়ার কথা জানান। পাশাপাশি তিনি নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে বেদখল হয়ে যাওয়া খালগুলো পুনরুদ্ধারসহ স্বল্পমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণের কথা উল্লেখ করেন ইশতেহারে। তিনি ইশতেহারে সিটি করপোরেশনকে একটি পূর্ণাঙ্গ নগর সরকারে পরিণত করার ধারণা দেন। 

সুনি নাগরিক ঐক্য পরিষদের প্রার্থী আবদুল মতিন নগরীর মাস্টার প্ল্যানের আওতায় কর্ণফুলী নদী পর্যন্ত তিনটি খাল খনন করে স্থায়ীভাবে জলাবদ্ধতা নিরসনের পরিকল্পনা তুলে ধরেন ইশতেহারে। পাশাপাশি যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, যানজট নিরসনে গণপরিবহন বৃদ্ধি করে সেবার মান বাড়ানোসহ বিশ্বমানের বন্দরনগরী গড়ার ঘোষণা দেন।

নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী আবদুল মতিন চরকা ও সোলায়মান আলম শেঠ ডিশ এন্টেনা প্রতীক নিয়ে লড়বেন। 

 

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement