Beta

ঝালকাঠিতে বিজিবি সদস্য হত্যায় একজনের যাবজ্জীবন

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ২২:৪৩

ঝালকাঠির নলছিটিতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্য মর্তুজা আলী খান হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ বুধবার দুপুরে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ বজলুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।  আদালত তাঁকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক মাসের কারাদণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত সামিউল হক দিপু (৪২) নলছিটি উপজেলার তিমিরকাঠি গ্রামের বাসিন্দা। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৮ সালের ৬ জুন দুপুরে মর্তুজা কুমারখালী বাজারে টেম্পো গাড়িতে বসা অবস্থায় শাবল দিয়ে সামিউল হক দিপু তাঁর মাথায় আঘাত করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় মর্তুজাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেওয়ার পরদিন সকাল ৬টায় তাঁর মৃত্যু হয়। নলছিটি পৌরসভার নাঙ্গুলি গ্রামের বাসিন্দা বিজিবি সদস্য চট্টগ্রাম থেকে ছুটিতে বাড়িতে আসার পথে এ ঘটনা ঘটে। সামিউল হক দিপুর সঙ্গে মর্তুজার কোনো বিরোধ ছিল না। সামিউল হক মাঝেমধ্যে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে লোকজনকে মারধর করতেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে নিহত মর্তুজা আলী খানের বড় ভাই আবদুল মান্নান খান বাদী হয়ে নলছিটি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। আদালত ১১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এ রায় ঘোষণা করেন। সরকারের পক্ষে অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি এম আলম খান কামাল এবং আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট মঞ্জুর হোসেন মামলা পরিচালনা করেন।

Advertisement
0.8207311630249