Beta

রিশা হত্যা মামলা শিশু আদালতে বদলি

২৩ আগস্ট ২০১৭, ২০:২৯

আদালত প্রতিবেদক
সুরাইয়া আক্তার রিশা। পুরোনো ছবি

রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশা হত্যা মামলা ঢাকার শিশু আদালতে বদলি করা হয়েছে। এখন থেকে এ মামলাটির বিচারকাজ ওই আদালতে চলবে।

আজ বুধবার এ মামলার অন্যতম আসামি ওবায়দুলের আইনজীবী ফারুক আহমেদ এনটিভি অনলাইনকে জানান, এ মামলার চারজন সাক্ষী শিশু। এ কারণে মামলাটি বিচারের জন্য শিশু আদালতে বদলি করার আবেদন করা হয়। সে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা শিশু আদালতে বদলি করার নির্দেশ দেন।

এর ফলে এ মামলাটির বিচারকাজ নতুন আদালতে নতুন করে শুরু হবে বলেও জানান এই আইনজীবী।

এর আগে মামলাটি ঢাকার অষ্টম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আবুল কাশেমের আদালতে বিচারাধীন ছিল।

গত বছরের ১৪ নভেম্বর ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আলী হোসেন রিশা হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগপত্রে ২৬ জনকে সাক্ষী হিসেবে রাখা হয়েছে।

২০১৬ সালের ৫ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আহসান হাবীবের আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারা অনুযায়ী স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন ওবায়দুল। জবানবন্দিতে ওবায়দুল বলেন, ‘আমি রিশাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিলাম। কিন্তু সে আমার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। তাই আমি তাকে ছুরিকাঘাত করি।’

এর আগে ওই বছরের ৩১ অক্টোবর ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) এইচ এম আজিমুল হকের নেতৃত্বে ওবায়দুলকে নীলফামারী থেকে গ্রেপ্তার করে ঢাকায় আনা হয়।

গত বছরের ২৫ অক্টোবর দুপুরে ঢাকার কাকরাইলে স্কুলের সামনে ফুটওভার ব্রিজের ওপর রিশার পেট ও হাতে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান টেইলার্স কর্মচারী ওবায়দুল। রিশাকে হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় রিশার মা রমনা থানায় দণ্ডবিধির ৩০৭ (হত্যার উদ্দেশ্যে আঘাত) ধারায় মামলা করেন। পরে রিশার মৃত্যু ঘটলে তা সরাসরি দণ্ডবিধির ৩০২ (হত্যা) মামলায় রূপান্তরিত হয়।

Advertisement
0.84201288223267