Beta

নাসিম বললেন

ফখরুলকে হামলায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে

১৯ জুন ২০১৭, ১৯:৩৭

বাসস
স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। ছবি :বাসস

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িবহরে হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা গণতন্ত্রের শত্রু। তারা যে দলেরই হোক তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

আজ সোমবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্য সংক্রান্ত ২০১৭-২০৩০ মেয়াদি জাতীয় কৌশল অবহিতকরণ সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এই গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে নাসিম বলেন, যারা এ ধরনের জঘন্য কাজ করেছে তারা কোনো দলের বন্ধু হতে পারে না। আওয়ামী লীগ এ কাজকে সমর্থন করে না। অতীতে শেখ হাসিনার ওপর অসংখ্যবার হামলা হয়েছে। কিন্তু আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী মোস্তফা সারোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে চিকিৎসা শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব সিরাজুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশে নিযুক্ত নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত লিওনি মার্গারেথা কুলিনেয়ার, ইউনিসেফের প্রতিনিধি এডওয়ার্ড বেইবেদার, ইউএনএফপিএর প্রতিনিধি ইউরি কাতো বক্তব্য দেন।

দেশের জনসংখ্যার এক পঞ্চমাংশ কিশোর-কিশোরী, এ তথ্য জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জাতির ভবিষৎ নির্মাণ করতে হলে এই বৃহৎ জনগোষ্ঠীর সুস্বাস্থ্য ও সুশিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। তারা যেন যথাযথ পুষ্টি পায় তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি তাদের মাদক বা যেকোনো নেশা থেকে দূরে থাকতে নিয়মিত পরামর্শ প্রদান করতে হবে।

বাল্যবিবাহ এবং অল্পবয়সে গর্ভধারণ কিশোরীদের স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ, এ কথা উল্লেখ করে নাসিম বলেন, বাল্যবিবাহ নিয়ে দেশে সচেতনতা বাড়ছে এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। সম্প্রতি দেখা গেছে দেশের বেশ কিছু জায়গায় মেয়েরা নিজেরাই নিজেদের অপ্রাপ্ত বযসের বিয়ে প্রতিরোধ করেছে। এই সচেতনতাবোধ আরো ছড়িয়ে দিতে হবে।

গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাঙামাটি যাওয়ার পথে রাঙ্গুনিয়ায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িবহরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ সময় গাড়ির ভাঙা কাচে মির্জা ফখরুল, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা আহত হন। দলের পক্ষ থেকে এ ঘটনার জন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দায়ী করা হয়েছে।

Advertisement
0.81879997253418