Beta

নরসিংদীতে জমি নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ

২০ মার্চ ২০১৭, ২০:০২

নরসিংদীর রায়পুরায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে একজন গুরুতর আহত হয়েছেন। এ সময় ঘরবাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার চানপুর ইউনিয়নের মাঝেরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ব্যক্তির নাম শাফিউদ্দিন (৫৫)। মুমূর্ষু অবস্থায় তাঁকে অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আজ সোমবার দুপুরে রায়পুরায় থানায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতিসহ ২০ জনের নামে মামলা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় এলাকার কামাল ও চানপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হজরত আলীর নেতৃত্বে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দল শাফি মিয়ার বাড়িতে অতর্কিতে হামলা চালায়। খবর পেয়ে শাফি মিয়ার স্বজনরা তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায়। এ সময় প্রতিপক্ষের লোকজন ঢুকে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ দুই লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। ভাঙচুর করা হয় ঘরবাড়ি। এ সময় প্রতিপক্ষের ছোড়া টেটা শাফি মিয়ার গলায় বিদ্ধ হয়। তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে শাফি মিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়। এরপর সেখান থেকে তাঁকে অ্যাপোলো হাসপাতালে নেওয়া হয়। বর্তমানে তাঁকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।

এদিকে, সংঘর্ষের খবর পেয়ে রায়পুরা থানার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় আহত শাফি মিয়ার ছেলে ছাত্রলীগ নেতা মো. মকবুল হোসেন মোবারক বাদী হয়ে রায়পুরা থানায় চানপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হজরত আলীসহ ১২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো সাত-আটজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন।

সূত্রে জানা যায়, চানপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী ছিলেন আহত শাফি মিয়ার ছেলে মো. মকবুল হোসেন মোবারক। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন হজরত আলী। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে দ্বন্দ্ব ছিল। সেই দ্বন্দ্বের জের ধরেই এ ঘটনা ঘটতে পারে।

রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজহারুল ইসলাম সরকার বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

Advertisement
Advertisement
0.86011290550232